Home / লালন গীতি

লালন গীতি

সে ফুলে ভাব নগরে কি শোভা করেছে।।

এক ফুলে চার রঙ ধরেছে। সে ফুলে ভাব নগরে কি শোভা করেছে।। কারণবারির মধ্যে সে ফুল ভেসে বেড়ায় একুল ওকূল। শ্বেতবরণ এক ভ্রমর ব্যাকুল সে ফুলের মধুর আশে ঘুরতেছে।। মূল ছাড়া সে ফুলের লতা ডাল ছাড়া তার আছে পাতা। এ বড় অকৈতব কথা ফুলের ভাব কই কার কাছে।। ডুবে দেখ …

Read More »

আছে যার মনের মানুষ মনে তোলা সে কি জপে অন্য মালা।

অতি নির্জনে বসে দেখছে খেলা।। কাছে রয় ডাকে তারে উচ্চস্বরে কোন পাগলা। যে যা বোঝে সে তাই বুঝে থাক রে ভোলা।। যার যেখানে ব্যথা নেহাত সেখানে করে ডলামলা। তেমনি জেনো মনের মানুষ মনে তোলা।। যে জনা দেখে সে রূপ করিয়ে চুপ রয় নিরালা। লালন ভেড়োর লোক দেখানো মুখে হরি হরি …

Read More »

আল্লাহ বলো মন রে পাখী।

ভবে কেউ কারো নয় দুঃখের দুখী।। ভুলো না রে ভব ভ্রান্ত কাজে আখেরে এসব কান্ড মিছে। মন রে আসতে একা যেতে একা এ ভব পিরিতের ফল আছে কি।। হওয়া বন্ধ হলে সুবাদ কিছুই নাই বাড়ির বাহির করেন সবাই। মন তোর কেবা আপন পর কে তখন দেখে শুনে খেদে ঝরে আঁখি।। …

Read More »

আয় দেখে যা নতুন ভাব এনেছে গোরা।

মুড়িয়ে মাথা গলে কাঁথা কটিতে কৌপীন পরা।। গোরা হাসে কাঁদে ভাবের অন্ত নাই সদাই দীন দরদী বলে ছাড়ে হাই। জিজ্ঞাসিলে কয় না কথা হয়েছে কি ধন হারা।। গোরা শাল ছেড়ে কৌপীন পড়েছে আপনি মেতে জগত মাতিয়েছে। মরি হায় কী লীলে কলিকালে বেধবিধি চমৎকারা।। সত্য ত্রেতা দ্বাপর কলি হয় গোরা তার …

Read More »

আমি ঐ চরণে দাসের যোগ্য নই।

নইলে মোর দশা কি এমন হয়।। ভাব জানিনে প্রেম জানিনে দাসী হতে চাই চরণে। ভাব দিয়ে ভাব নিলে মনে সেই সে রাঙ্গা চরণ পায়।। নিজগুনে পদারবিন্দু দেন যদি সাঁই দীনবন্ধু তবে তরি ভবসিন্ধু নইলে না দেখি উপায়।। অহল্যা পাষানী ছিল প্রভুর চরণ ধূলায় মানব হলো। লালন পথে পড়ে র’লো যা …

Read More »

আমারে কি রাখবেন গুরু চরণদাসী।

ইতরপনা কার্য আমার ঘটে অহর্নিশি।। জঠর যন্ত্রণা পেয়ে এসেছিলাম কড়ার দিয়ে। সে সকল গিয়াছি ভুলে ভবে তে আসি।। চিনলাম না সে গুরু কি ধন করলাম না তার সেবা সাধন। ঘুরতে বুঝি হলো রে মন আবার চুরাশি।। গুরুরূপ যার বাঁধা হৃদয় শমন বলে তার কিসের ভয়। লালন বলে মন তুই আমায় …

Read More »

আছে ভাবের তালা যেই ঘরে

আছে ভাবের তালা যেই ঘরে সেই ঘরে সাঁই বাস করে।। ভাব দিয়ে খোল ভাবের তালা দেখবি সে মানুষের খেলা। ঘুচে যাবে মনের ঘোলা থাকলে সে রূপ নিহারে।। ভাবের ঘরে কি মূরতি ভাবের লন্ঠন ভাবের বাতি। ভাবের বিভাব হলে এক রতি অমনি সে রূপ যায় সরে।। ভাব নইলে ভক্তিতে কি হয় …

Read More »

সেই ঘরে সাঁই বাস করে।।

আছে ভাবের তালা যেই ঘরে সেই ঘরে সাঁই বাস করে।। ভাব দিয়ে খোল ভাবের তালা দেখবি সে মানুষের খেলা। ঘুচে যাবে মনের ঘোলা থাকলে সে রূপ নিহারে।। ভাবের ঘরে কি মূরতি ভাবের লন্ঠন ভাবের বাতি। ভাবের বিভাব হলে এক রতি অমনি সে রূপ যায় সরে।। ভাব নইলে ভক্তিতে কি হয় …

Read More »

আপন ঘরের খবর নে না।

আপন ঘরের খবর নে না। অনা’সে দেখতে পাবি কোনখানে সাঁইর বারামখানা।। কমলকোঠা কারে বলি কোন মোকাম তার কোথা গলি। কোন সময় পড়ে ফুলি মধু খায় সে অলিজনা।। সূক্ষ্মজ্ঞান যার ঐক্য মুখ্য সাধকেরই উপলক্ষ। অপরূপ তার বৃক্ষ দেখলে চোখের পাপ থাকে না।। শুক্লনদীর সুখ সরোবর তিলে তিলে হয় গো সাঁতার। লালন …

Read More »

আপন সুরতে আদম গঠলেন দয়াময়।

আপন সুরতে আদম গঠলেন দয়াময়। তা নইলে কি ফেরেশতারে সেজদা দিতে কয়।। দুষে সে আদম সফি আজাজিল হল পাপী। মন তোমার লাফালাফি তেমনি দেখা যায়।। আল্লাহ আদম না হইলে পাপ হইত সেজদা দিলে। শেরেকি পাপ যারে বলে এ দীন দুনিয়ায়।। আদমি হলে চেনে আদম পশু কি তার জানে মরম। ফকির …

Read More »